-

জেমিনিড উল্কা বৃষ্টি সম্পর্কে জানেন তো?

প্রথমেই জেনে নেয়া যাক জেমিনিড উল্কা বৃষ্টি আসলে কি ? এটি হচ্ছে এক ধরনের উল্কাবৃষ্টি যা কিনা ৩২০০ ফাইতং দ্বারা সৃষ্ট। এটি “রক ধূমকেতু” কক্ষপথের একটি প্যালাডিয়ান গ্রহাণু বলে মনে করা হয়। প্রতি বছর ৬ থেকে ১৭ ডিসেম্বরের মধ্যে এই জেমিনিড উল্কা বৃষ্টি হতে দেখা যায়।

নাসার মতে, প্রতি মূহুর্তে মহাবিশ্ব থেকে নানা ধরনের পিণ্ড ও আলোকরশ্মি পৃথিবীর ওপর আছড়ে পড়ে। তবে যখন স্বাভাবিক সময়ের বেশি পরিমান উল্কা আছড়ে পড়ে তখন তা উল্কাবৃষ্টি আকারে দেখা যায়। জেমিনিড উল্কা বৃষ্টি বছরের সবচেয়ে সেরা উল্কাবৃষ্টি হিসাবে বিবেচিত হইয়ে থাকে। কারণ এটি উজ্জ্বল, দ্রুত ও ক্ষিপ্ত।

রাতের আকাশের অন্ধকার ভেদ করে আলোকরশ্মি তীরের মতো উড়ে যেতে থাকে। আর সেই অসাধারণ দৃশ্য বিশ্বের বেশিরভাগ স্থান থেকেই দেখা যায়। বাংলাদেশের অনুসন্ধিৎসু চক্র জানিয়েছে, বাসার ছাদ বা খোলা জায়গা থেকে সরাসরি উপর দিকে তাকালে এই উল্কাবৃষ্টি দেখা যাবে।

তবে তাদের মতে এবছর মধ্য রাত ২টার দিকে এটি দেখার জন্য সবচেয়ে ভাল সময় হবে। মজার ব্যাপার হচ্ছে এবছর চাঁদের আলো থাকবেনা, সুতরাং আপনি স্পষ্টভাবে অসাধারণ সেই জেমিনিড উল্কা বৃষ্টি দেখতে পাবেন। 

এছাড়াও, উল্কাবৃষ্টি দেখার জন্য অনুসন্ধিৎসু চক্রের মহাকাশ বিভাগ ১১টি ক্যাম্প করেছে। ঢাকার ৪টি ক্যাম্প করা হয়েছে মিরপুর, ডেমরা, মুগদাপাড়া ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। এছাড়া চাঁদপুর, চাপাইনবাবগঞ্জ, বান্দরবান, ঠাকুরগাঁও, কুমিল্লাতেও ক্যাম্প খোলা হয়েছে।

অনেকের মনেই হয়তো বা গুগল ডুডল দেখে প্রশ্ন জেগেছে গুগল এই জেমিনিড উল্কাবৃষ্টির ডুডল দেখাচ্ছে কেন? আজ ১৩ ডিসেম্বর, এবং আজ রাত থেকেই সর্বকালের সেরা জেমিনিড উল্কা বৃষ্টিপাত দেখা যাচ্ছে তারই উপলক্ষে গুগল তাদের ডুডল হিসেবে জেমিনিড উল্কাবৃষ্টির ডুডল ব্যাবহার করেছে।

 লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

1 COMMENT

  1. Important information are compiled in this website & helpful for everybody.
    I appreciate the builder of the site.
    Good luck.
    Ahsan

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ প্রকাশিত