-

এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটার নিয়ন্ত্রন করার জন্য ৫টি সফটওয়্যার ও টুলস

আজ আমি আপনাদের কাছে এমন ৫টি সফটওয়্যার ও টুলস এর পরিচয় করিয়ে দেব যাদের সাহায্যে আপনি এক জায়গায় বসে অন্য জায়গার কম্পিউটারগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।আর এই সফটওয়্যার ও টুলস গুলো একদম ফ্রি তে পাচ্ছেন।

এই প্রযুক্তিকে রিমোট একসেস বলা হয়! রিমোট একসেস সফটওয়্যার এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই আপনি দুনিয়ার এক স্থানে বসে অন্য স্থানের কম্পিউটারগুলোকে একসেস করতে পারবেন।যেমন আপনার আত্নীয় বা বন্ধুর পিসিতে কোনো সফটওয়্যার ইন্সটল করা, বা কোনো ছোটখাট সমস্যার সমাধান করা কিংবা আপনার গ্রামের বাসার পিসিতে কোনো ছোটখাট সমস্যার সমাধান করা ইত্যাদি। আজকে আমি এরকম ৫টি ফ্রি এবং সহজে ব্যবহারযোগ্য রিমোট একসেস সফটওয়্যার নিয়ে কথা বলতে চলে এসেছি। তো চলুন দেখে নেই কি কি সফটওয়্যার রয়েছে:

টিম ভিউয়ার:

সম্পর্কিত ছবি

 

রিমোট একসেস করার জন্য জনপ্রিয় একটি সফটওয়্যার হচ্ছে TeamViewer. এটি অনেক ফিচারসমৃদ্ধ সহজে ব্যবহারযোগ্য এবং প্রায় সব অপারেটিং সিস্টেমকে সার্পোট করে। যে পিসিতে রিমোট একসেস পেতে চান সেখানে 5MB এর TeamViewer QuickSupport সফটওয়্যারটি ইন্সটল করে ৯ ডিজিটের আইডি কোড এবং ৪ ডিজিটের পাসওর্য়াডটি লিখে নিতে হবে। তারপর হোস্ট পিসিতে পূর্ণাঙ্গ TeamViewer সফটওয়্যারটি ইন্সটল করে উক্ত আইডি ও পাসওর্য়াড লিখে এন্টার করলেই কানেক্ট প্রক্রিয়া শুরু হবে। এই সফটওয়্যারে স্ক্রিণ রেকডিং, ফাইল টান্সফার, বেসিক সিস্টেম ইনফরমেশন শেয়ারিং, রিমোট রিবুটসহ বেশ কিছু ফিচার রয়েছে।

ক্রোম রিমোট ডেস্কটপ:

Chrome Remote Desktop এর ছবি ফলাফল

গুগলের Chrome Remote Desktop হচ্ছে একটি ফ্রি এপ যেটির মাধ্যমে ক্রোম ওয়েব ব্রাউজ বা ক্রোমবুক থেকেই সরাসরি রিমোট কন্ট্রোল ফিচার ব্যবহার করা যায়। এই পদ্ধতিতে রিমোট কনট্রোল সুবিধা উপভোগ করতে চাইলে কিছু রিকোয়ারমেন্টস রয়েছে। সেগুলো হলো দুটি পিসিতেই গুগল ক্রোম ব্রাউজার ইন্সটল করা থাকতে হবে, দুটিতেই তাদের গুগল একাউন্টে সাইন করে ৩ মেগাবাইটের ক্রোম রিমোট ডেস্কটপ এপটি ইন্সটল করতে হবে এবং সর্বশেষে রিমোট ডেস্কটপ এপটিতে পারমিশন গ্রান্ট করতে হবে।
ক্রোম রিমোট ডেস্কটপ ইন্সটল করার পর এর ব্যবহার খুবই সোজা। যে পিসিকে রিমোটলি কনট্রোল করা হবে সেটিতে লাল রংয়ের শেয়ার বাটনে ক্লিক করতে হবে এবং তারপর ১২ ডিজিটের একটি একসেস কোড পাবেন। এবার এই একসেস কোডটি যিনি রিমোটলি একসেস করবেন তার কাছে পাঠিয়ে দিন, তিনি তার পিসিতে একসেস বাটনে ক্লিক করে উক্ত ১২ ডিজিটের কোডটি টাইপ করে কানেক্ট বাটনে ক্লিক করলেই প্রসেস চালু হবে।
গুগল ক্রোম রিমোট ডেস্কটপ শুধুমাত্র পিসিকে রিমোটলি কনট্রোল করতে পারবে কিন্তু বিভিন্ন উন্নত মানের ফিচার যেমন ফাইল ট্রান্সফার, VOIP ইত্যাদি ফিচারগুলো এতে নেই।

এমি এডমিন:

Ammyy Admin সাইজে ছোট এবং নন কর্মাশিয়াল ব্যবহারের জন্য একটি ফ্রি রিমোট একসেস সফটওয়্যার। এর সাইজ মাত্র ৭০০ কিলোবাইট। এই সফটওয়্যার ব্যবহারের করে রিমোট একসেস করতে চাইলে দুটি পিসিতেই এমি এডমিন সফটওয়্যার ইন্সটল করে ৮ ডিজিটের আইডি আদান প্রদানের মাধ্যমেই প্রসেস শুরু করা যায়।

 

তবে লক্ষ্য রাখতে হবে আইডি কোডের মাধ্যমে প্রতি মাসে ১৫ ঘন্টার জন্য রিমোট কনট্রোল, ফাইল ম্যানেজার, ভয়েস চ্যাট এবং RDP কানেক্টশন সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। তবে সরাসরি আইপি এড্রেস ব্যবহার করে কানেক্ট করা হলে এই লিমিট থাকবে না।

 

সিক্রিন:

Seecreen একটি ছোট সাইজের ফ্রি রিমোট একসেস সফটওয়্যার। সাইজে অনেক ছোট (মাত্র ৬৬৪ কিলোবাইট) এবং জাভার সাহায্যে চলে বিধায় এটি উইন্ডোজ, ম্যাক এবং লিনাক্সে ব্যবহার করা যায় এছাড়াও এই সফটওয়্যারটি তাদের নিজস্ব স্ক্রিণ শেয়ারিং প্রোটকল ব্যবহার করে। এছাড়াও এই সফটওয়্যারে সেশন রেকডিং, ভয়েস চ্যাট এবং ফাইল টান্সফারেরও সুবিধা রয়েছে।

এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করার জন্য হোষ্ট পিসিতে ক্লায়েন্ট পিসির রিমোট আইডি এবং পাসওর্য়াড লিখে কানেক্ট করলেই প্রসেস শুরু হয়ে যাবে। এই ছোট্ট রিমোট একসেস সফটওয়্যারটি ব্যবহার করার আগে আপনার এবং রিমোট একসেস পিসিতে লেটেস্ট সংস্করণের জাভা ইন্সটল করা থাকতে হবে।


এনিডেস্ক:

আজকের টিউনটি শেষ করছি একটি চমৎকার রিমোট একসেস সফটওয়্যারটি দিয়ে। AnyDesk হচ্ছে একটি ফ্রি রিমোট একসেস প্রোগ্রাম যেখানে ইন্সটলের ঝামেলা নেই, ফাইল টান্সফারের সুবিধা রয়েছে এই প্রোগ্রামটি রাউটার কনফিগারেশনের ছাড়াই ব্যবহার করা যায়।

আজকের টিউনে সবার শীর্ষে আমি এই সফটওয়্যারটি রাখতে চাই কারণ এটার ফ্রি সংস্করণে নন কমার্শিয়াল ভাবে আপনি সকল প্রিমিয়ার ফিচার উপভোগ করতে পারবেন। যেটা TeamViewer এর মতো জনপ্রিয় প্রোগ্রামেও দেওয়া নেই। তবে টিউনে সবার শীর্ষে রাখার মূল কারণ হচ্ছে এই রিমোট একসেস প্রোগ্রামে অন্যান্য প্রোগ্রামে থেকে সবথেকে বেশি স্পিড পাওয়া যায়।

এছাড়াও AnyDesk এর অনান্য ফিচারগুলো হচ্ছে এখানে ক্লিপবোর্ড কনটেন্ট শেয়ার করা যায়, ভিডিও কোয়ালিটি এবং স্পিড এর মধ্যে নিজস্ব সেটিং প্রয়োগ করা যায়, ক্লিপাবোর্ডের মাধ্যমে সহজে ফাইল টান্সফার, পোর্টেবল মোডে চলা অবস্থাও রিমোট পিসিকে রিস্টার্ট দেওয়া যায়, রিমোট পিসিতে সকল প্রকার কিবোর্ড শর্টকাট ব্যবহার করা যায় এবং যেকোনো সময় হোস্ট এবং কায়েন্ট পিসির মধ্যে পজিশন অদলবদল করা সহ ইত্যাদি বিভিন্ন প্রিমিয়াম ফিচার এতে রয়েছে। আর এর সাইজও অনেক ছোট মাত্র ৩ মেগাবাইটের মতো। আজই এই চমৎকার রিমোট একসেস সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করতে কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ প্রকাশিত